সোমবার, ১৭ই জুন ২০২৪, ৩রা আষাঢ় ১৪৩১


প্রতারণার মামলায় ছাত্রলীগ নেতা কারাগারে


প্রকাশিত:
১৮ নভেম্বর ২০২৩ ০৯:১১

আপডেট:
১৭ জুন ২০২৪ ০৭:১৩

ছবি-সংগৃহীত

জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার সকল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, সচিব (ইউপি), পৌরসভার মেয়র এবং পৌর সচিবের নামে নকল সিল বানিয়ে ব্যবহার করে প্রতারণা মামলায় মো. মিনাল শেখ (২০) নামে এক ছাত্রলীগ নেতাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত।

শুক্রবার (১৭ নভেম্বর) বিকেলে ইসলামপুর থানা-পুলিশের দায়ের করা মামলায় আদালতে হাজির করা হলে মিনাল শেখের জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন বিচারক।

এর আগে বৃহস্পতিবার (১৬ নভেম্বর) দুপুরে ইসলামপুর পৌর শহরের থানা ভবন সংলগ্ন জেকি ভবন থেকে মিনাল শেখকে গ্রেফতার করে পুলিশ। সেই রাতেই উপপরিদর্শক (এসআই) তারেক আহমেদ বাদী হয়ে জনপ্রতিনিধি ও সচিবদের ব্যবহৃত সিল তৈরি করে অবৈধভাবে ব্যবহার করার অপরাধে মিনাল শেখের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

মিনাল শেখ ইসলামপুর সদর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের দপ্তর সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। তিনি ওই ইউনিয়নের পচাবহলা পশ্চিমপাড়া এলাকার মনোয়ার হোসেনের ছেলে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ইসলামপুর উপজেলার ১২ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান-সচিবসহ পৌর মেয়র ও সচিবের নামের নকল সিলমোহর বানিয়ে ব্যবহার করা হচ্ছে মর্মে গোপন খবরের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার দুপুরে ইসলামপুর থানা ভবন সংলগ্ন জেকি ভবনে মিনাল কম্পিউটার ও ফটোকপির দোকানে ইসলামপুর থানা পুলিশের একটি দল অভিযান চালায়। এ সময় ইউপি চেয়ারম্যান, সচিব, পৌর মেয়র এবং পৌর সচিবের নামে ১৯টি নকল সিল জব্দ করাসহ ওই দোকানের স্বত্বাধিকারী ছাত্রলীগ নেতা মিনাল শেখকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

মামলার বাদী এসআই তারেক আহমেদ বলেন, দীর্ঘদিন ধরে উপজেলার সকল ইউপি চেয়ারম্যান-সচিব এবং পৌর মেয়র ও সচিবের নকল সিলমোহর ব্যবহার করে সাধারণ মানুষের কাছে অর্থ হাতিয়ে নিয়ে আসছিল মিনাল শেখ। টাকার বিনিময়ে সে কখনো ইউপি চেয়ারম্যান ও সচিব সেজে পরিচয়পত্র, জন্ম নিবন্ধনে সিলমোহর দেওয়াসহ নিজেই নকল স্বাক্ষরও দিয়েছে। আবার কখনো পৌর মেয়র ও পৌর সচিব সেজেও সিলমোহর দিয়ে বিভিন্ন কাগজপত্রে স্বাক্ষর করেছে। এ বিষয়ে ছাত্রলীগ নেতা মিনাল শেখের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

চিনাডুলি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম বলেন, জনপ্রতিনিধিদের সিল তৈরি করে ও স্বাক্ষর জাল করে সে জন্ম নিবন্ধনসহ বিভিন্ন কাগজপত্রে ব্যবহার করতো। পুলিশ সেই অভিযুক্ত মিনাল শেখকে গ্রেফতার করেছে। আমার এ ঘটনার আমরা তার উপযুক্ত বিচার দাবি করছি।

থানায় থাকাবস্থায় গ্রেফতার মিনাল শেখ বলেন, আমি সদর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের দপ্তর সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালন করে আসছি। জনপ্রতিনিধি এবং সচিবদের নামে নকল সিল বানিয়ে ব্যবহার করাটা আমার ভুল। বিষয়টি ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখার অনুরোধ রইলো। আমি জীবনে এমন হীন কাজ আর করবো না।

জামালপুর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি খাবিরুল ইসলাম খান বাবু বলেন, জনপ্রতিনিধিদের নামে নকল সিল বানিয়ে ব্যবহার করাটা জঘন্য অপরাধ। ছাত্রলীগে কোনো অপরাধীর স্থান নেই। খুব দ্রুত সময়ের মধ্যেই মিনাল শেখের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ইসলামপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সুমন তালুকদার বলেন, গ্রেফতার মিনাল শেখের দোকান থেকে তার ব্যবহৃত সিলমোহরসহ চেয়ারম্যানের স্বাক্ষর জাল করে ভোটার নিবন্ধন ফরম এবং দুইটি অঙ্গীকারনামার ফটোকপি উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার আদালতে সোপর্দ করা হলে বিচারক জামিন নামঞ্জুর করে মিনাল শেখকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


রিসোর্সফুল পল্টন সিটি (১১ তলা) ৫১-৫১/এ, পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০।
মোবাইল: ০১৭১১-৯৫০৫৬২, ০১৯১২-১৬৩৮২২
ইমেইল : [email protected], [email protected]
সম্পাদক: মো. জেহাদ হোসেন চৌধুরী

রংধনু মিডিয়া লিমিটেড এর একটি প্রতিষ্ঠান।

Developed with by
Top