শনিবার, ৩রা ডিসেম্বর ২০২২, ১৯শে অগ্রহায়ণ ১৪২৯


ঝুলন্ত তার জঞ্জালমুক্ত করার আশা মেয়র তাপসের


প্রকাশিত:
২৩ নভেম্বর ২০২২ ১৪:৫৩

আপডেট:
৩ ডিসেম্বর ২০২২ ০৯:০৫

ছবি সংগৃহিত

রাজধানীকে ধীরে ধীরে তারের জঞ্জালমুক্ত করার আশাবাদ ব্যক্ত করে দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বলেছেন, ঢাকার সৌন্দর্য আমরা অনেকাংশেই উপলব্ধি করতে পারি না। কারণ বিভিন্ন কারণে এর সৌন্দর্য ঢাকা পড়ে যায়। সেই ঢাকা পড়ে যাওয়ার অন্যতম একটি মূল উপাদান হলো ঝুলন্ত তার।

বুধবার (২৩ নভেম্বর) ধানমন্ডিতে ‘ধানমন্ডি আন্ডারগ্রাউন্ড ডিস্ট্রিবিউশন নেটওয়ার্ক’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

মেয়র তাপস বলেন, পৃথিবীর অন্যান্য শহরের মতো ঢাকা শহরের উপর দিয়ে যাওয়া বিদ্যুতের তার, অন্যান্য ইউটিলিটির তারের জঞ্জালের জন্য আমরা এর সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারি না। কিন্তু আমরা যখন বহির্বিশ্বে যাই তখন বিমানবন্দর থেকে বের হয়ে দেখি, একটি খোলা জায়গা, স্বচ্ছ জায়গা। কোনো তারের জঞ্জাল নেই, চোখে কোনো বাধা নেই। সেক্ষেত্রে ওই শহরটিকে অনেক সুন্দর মনে হয়। একটা সুন্দর অনুভূতি উপলব্ধি হয়। আজকের এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আমরা ঢাকা শহরের মাথার ওপরের তারের জঞ্জাল ভূগর্ভস্থে নিয়ে যেতে পারছি, নিয়ে যাবো। তাই আজ আমরা আনন্দিত।

তিনি বলেন, নিন্দুকেরা নিন্দার কথা বলেই যাবে। যে যাই বলুক, যত রকম বিভ্রান্তি ছাড়ানোর চেষ্টা করুক, জননেত্রী শেখ হাসিনা কিন্তু তার লক্ষ্য থেকে একটুও সরে দাঁড়াননি। তার লক্ষ্য নিয়ে তিনি কাজ করে চলেছেন। নিন্দুকের নিন্দার মধ্যেই পদ্মা সেতু উদ্বোধন হয়েছে। নিন্দুকের নিন্দার মধ্যেই এমআরটির কাজ গতিশীলভাবে চলছে। শিগগিরই এমআরটি চালু হবে। নিন্দুকের নিন্দার মধ্যেই কর্ণফুলী নদীতে বঙ্গবন্ধু টানেল চালু হয়ে যাচ্ছে। ঢাকা এগিয়ে যাবে। বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জাতির পিতার স্বপ্নের লালিত সোনার বাংলা গড়ার দিকে বীরদর্পে এগিয়ে যাবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জনগণের প্রত্যাশা পূরণে রূপকল্প-২০৪১ বাস্তবায়নে কাজ করে চলেছেন উল্লেখ করে মেয়র তাপস বলেন, ১৪ বছরের মধ্যে একটি দেশকে নিম্নমধ্যম আয়ের দেশের গণ্ডি পেরিয়ে উন্নয়নশীল দেশে পরিণত করার নজির সারা বিশ্বে আর নেই। মালয়েশিয়া করেছে ২৫ বছরে, সিঙ্গাপুর করেছে ৩৫ বছরে। সুতরাং যাদের সঙ্গে পার্থক্য দেখানো হয়, সেসব দেশের অনেক আগেই অনেক অল্প সময়ের মধ্যেই আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে উন্নয়নশীল দেশে রূপান্তরিত করেছেন।

জানা গেছে, ডিপিডিসির আওতাধীন এলাকায় আন্ডারগ্রাউন্ড ডিস্ট্রিবিউশন নেটওয়ার্ক নির্মাণ-শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ধানমন্ডিতে ২০ কিলোমিটার ওভারহেড বিদ্যুৎ বিতরণ লাইনকে আন্ডারগ্রাউন্ড বিদ্যুৎ বিতরণ ব্যবস্থায় রূপান্তর করা হবে। বাংলাদেশ-চীন জিটুজি স্কিমে ২ বিলিয়ন ডলার ব্যয়ে ডিপিডিসির আওতাধীন এলাকায় আন্ডারগ্রাউন্ড ডিস্ট্রিবিউশন নেটওয়ার্ক নির্মাণ প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে। এর মধ্যে ধানমন্ডি এলাকার ২০ কিলোমিটার ওভারহেড বিদ্যুৎ বিতরণ লাইনকে আন্ডারগ্রাউন্ড বিদ্যুৎ বিতরণ ব্যবস্থাপনায় রূপান্তর করতে ৫৩ মিলিয়ন ডলার ব্যয় হবে। আগামী ২০২৪ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে।

ডিপিডিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী বিকাশ দেওয়ানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থতি ছিলেন বিদ্যুৎ বিভাগের সচিব ও ডিপিডিসির পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান মো. হাবিবুর রহমান, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের অঞ্চল-১ এর আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা মেরীনা নাজনীন, অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মো. জাফর আহমেদ প্রমুখ।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


রিসোর্সফুল পল্টন সিটি (১১ তলা) ৫১-৫১/এ, পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০।
মোবাইল: ০১৭১১-৯৫০৫৬২, ০১৯১২-১৬৩৮২২
ইমেইল : editordailymail@gmail.com, newsroom.dailymail@gmail.com
সম্পাদক: মো. জেহাদ হোসেন চৌধুরী

রংধনু মিডিয়া লিমিটেড এর একটি প্রতিষ্ঠান।

Developed with by
Top