রবিবার, ১৯শে মে ২০২৪, ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১


লিবিয়া : মৃত্যুর সংখ্যায় সংশোধন আনল জাতিসংঘ


প্রকাশিত:
১৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ০২:৩০

আপডেট:
১৯ মে ২০২৪ ০৪:০২

 ফাইল ছবি

লিবিয়ার পূর্বাঞ্চলীয় উপকূলীয় শহর দেরনায় সম্প্রতি ঘূর্ণিঝড় ড্যানিয়েলের প্রভাবে সৃষ্ট প্রবল জলোচ্ছ্বাস-বন্যায় ঘোষিত মৃতের সংখ্যায় পরিবর্তন এনেছে জাতিসংঘ।

রোববার নিউইয়র্কে জাতিসংঘের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সংস্থাটির মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসের উপমুখপাত্র ফারহান হক এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

শনিবার জাতিসংঘের মানবিক সহায়তা বিষয়ক অঙ্গসংগঠন ইউনাইটেড নেশনস অফিস ফর কো অর্ডিনেশন অব হিউম্যানিটেরিয়ান অ্যাফেয়ার্স (ওচা) জানিয়েছিল, ড্যানিয়েল-দুর্যোগে লিবিয়ার দেরনায় ১১ হাজার ৩ শ’রও বেশি মানুষ নিহত এবং ১০ হাজারেরও বেশি মানুষ নিখোঁজ হয়েছেন।

রোববারের সংবাদ সম্মেলনে ফারহান হক জানান, ঘূর্ণিঝড় ড্যানিয়েলের কারণে সৃষ্ট বিপর্যয়ে দেরনায় নিহত হয়েছেন অন্তত ৩ হাজার ৯৫৮ জন এবং এখনও নিখোঁজ রয়েছেন ৯ হাজারেরও বেশি মানুষ।

ফারহান হক বলেন, ‘আমাদের আগের সংখ্যাটি তেমন যাচাই করে প্রকাশ করা হয়নি। ডব্লিউএইচওর প্রতিনিধিদল ঘটনাস্থলে উপস্থিতি থেকে যাচাই-বাছাই করে নিহত-নিখোঁজের নতুন সংখ্যাটি পাঠিয়েছে। আমরা ডব্লিউএইচওর পাঠানো সংখ্যাটির ওপর আস্থা রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

কী কারণে এই ভ্রান্তি ঘটল সাংবাদিকদের এই প্রশ্নের উত্তরে ফারহান হক বলেন, ‘দেরনায় বিপর্যয়ের যে মাত্রা, তাতে প্রথম নিহত-নিখোঁজের সঠিক সংখ্যা প্রাপ্তির সম্ভাবনা এবং প্রাপ্ত তথ্য যাচাইয়ের সুযোগ খুবই কম ছিল। স্থানীয় সূত্রগুলোর ওপর আমাদের নির্ভর করতে হয়েছে। অনেক ক্ষেত্রে একই মৃতদেহ একাধিকবার গণনা করা হয়েছে।’

‘ডব্লিউএইচওর প্রতিনিধিদল ঘটনাস্থলে সরেজমিনে ঘুরেছে এবং নিহত-নিখোঁজের প্রতিটি ঘটনা যাচাই-বাছাই করেছে। এ কারণে আমরা ডব্লিউএইচওর পরিসংখ্যানই গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

‘তবে এই সংখ্যাই যে অপরিবর্তিত থাকবে এমন নয়। নির্ভরযোগ্য তথ্যের ভিত্তিতে এখানে হ্রাস-বৃদ্ধি ঘটতেই পারে।’

গত ১০ সেপ্টেম্বর উত্তর আফ্রিকার দেশ লিবিয়ার পূর্বাঞ্চলীয় উপকূলীয় শহর দেরনায় আছড়ে পড়ে ভূমধ্যসাগরে উদ্ভূত প্রবল শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ড্যানিয়েল। ঝড়ের ফলে সৃষ্ট জলোচ্ছ্বাস এবং শহরটি ভেতর দিয়ে বয়ে যাওয়া ওয়াদি দেরনা নদীর বাঁধ ভেঙে লাখ লাখ গ্যালন পানি শহরের ভেতরে প্রবেশ করায় আক্ষরিক অর্থেই ভেসে যায় শহরটি।

বস্তুত, ঝড়-জলোচ্ছ্বাস-বন্যায় দেরনার অধিকাংশ আবাসিক ভবন ভেঙে পড়েছে এবং সেসব ধ্বংসস্তুপের নিচ থেকে এখনও উদ্ধার হচ্ছে শত শত দেহ।

এদিকে ড্যানিয়েলের প্রভাবে ভূমধ্যসাগরের উপকূলবর্তী গ্রিসের বিভিন্ন অঞ্চলে বন্যা দেখা দিয়েছে বলে জানা গেছে।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


রিসোর্সফুল পল্টন সিটি (১১ তলা) ৫১-৫১/এ, পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০।
মোবাইল: ০১৭১১-৯৫০৫৬২, ০১৯১২-১৬৩৮২২
ইমেইল : [email protected], [email protected]
সম্পাদক: মো. জেহাদ হোসেন চৌধুরী

রংধনু মিডিয়া লিমিটেড এর একটি প্রতিষ্ঠান।

Developed with by
Top